মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৫৭ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
যুবদলের ৪২ তম প্রতিষ্টা বার্ষিকী আজ : নেতৃত্বে ছিলেন যারা মুজিব জন্ম শতবর্ষ উপলক্ষে কালারমারছড়া ইউনিয়ন পরিষদে দিন ব্যাপি ফ্রি চিকিৎসা সেবা ও বিলামূল্যে ঔষধ বিতরণ ইরফান সেলিমের বাসা থেকে বিদেশি মদ-বিয়ার-অস্ত্র উদ্ধার চকরিয়ায় বখাটের লাথিতে গৃহবধূর ২মাসের গর্বের সন্তান নষ্ট চকরিয়ায় ছেলের হাতে শতবর্ষী বাবা প্রহৃত পেকুয়ায় পিকআপ-অটোরিক্সা সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ৪ জাতীয় পার্টির লামা সাংগঠনিক জেলা শাখার ১ম বর্ষপূর্তি ও কার্যালয় উদ্বোধন মৎস্যজীবিলীগ কক্সবাজার জেলা সভাপতি কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় অভিনন্দন চকরিয়ার সংবাদপত্র এজেন্ট জয়নাল আবেদিনের ইন্তেকালে সংবাদপত্র হকার্স সমিতির গভীর শোক এস কে সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ
চকরিয়া সরকারি হাসপাতালে মাল্টিপারপাস ভোলান্টিয়ারদের ১১ লাখ টাকা লুট

চকরিয়া সরকারি হাসপাতালে মাল্টিপারপাস ভোলান্টিয়ারদের ১১ লাখ টাকা লুট

নিজস্ব প্রতিনিধি

কক্সবাজারের চকরিয়া সরকারি হাসপাতালে বিভিন্ন ক্ষেত্রে চলছে হরিলুট। উপজেলা প.প  কর্মকর্তার চোখ ফাঁকি দিয়ে হাসপাতালের হিসাব রক্ষকের নেতৃত্বে চলছে এসব লুটপাট। ইতোমধ্যে হাসপাতালে নিয়োগ দেওয়া ৩০৮ মাল্টিপারপাস ভোলান্টিয়ারের সম্মানির টাকা নিয়ে করা হয়েছে নয়-ছয় কাণ্ড।

২০১৯ সালের জুলাই  থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত ৬মাসে বিভিন্ন অযুহাতে লুট করা হয়েছে প্রায় ১১লাখ টাকা। এ নিয়ে মাল্টিপারপাস ভোলান্টিয়ারদের মাঝে প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হলে বেরিয়ে আসে চাঞ্চল্যকর এসব তথ্য। সঠিকভাবে তদন্ত করলে মিলবে এসব তথ্যের সত্যতা।

বিস্তারিত তথ্যে জানা গেছে, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরাধীন বেইজড হেলথ কেয়ার অপারেশনাল প্লানের আওতাধীন চকরিয়া সরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ২০১৮ সালে প্রতিটি ক্লিনিকের জন্য ৭জন করে ৪৪ টি কমিনিউটি ক্লিনিকে ৩০৮ জন মাল্টিপারপাস ভোলান্টিয়ার নিয়োগ দেওয়া হয়। প্রাপ্ত তথ্যমতে তাদের বেতনের পরিবর্তে প্রতিজনের জন্য সম্মানি নির্ধারণ করা হয় মাসিক ৩৬০০ টাকা। অস্থায়ী ভিত্তিতে নিয়োগ প্রাপ্ত এসব ভোলান্টিয়ারগণ সম্মানি পাওয়া শুরু করে ২০১৯ সালের জুলাই হতে। নির্ভরযোগ্য সুত্র জানায়, ২০১৯ সালের জুলাই হতে ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত ৩০৮ জনের সম্মানি আসে প্রায় ৬৮ লাখ টাকা।

কয়েকজন ভুক্তভোগি ভোলান্টিয়ার ও কমিউনিটি হেল্থ কেয়ার সার্ভিস প্রোবাইডার অভিযোগ করেন, হাসপাতালে কর্মরত হিসাব রক্ষক ছৈয়দ হোছাইন হিসাব রক্ষকের অফিসের নামে ১লাখ ৮৪ হাজার ৮০০ টাকা হাতিয়ে নেন। এছাড়া নিয়োগ পাওয়ার পর সম্মানিক কম হওয়া ও সম্মানি দেরিতে আসাতে চাকুরি ছেড়ে দেওয়া ২৫/৩০ জন ভোলান্টিয়ারের নামে বিল ভাউচার করে প্রায় ৬ লাখ টাকা লুটে নেন ওই হিসাব রক্ষক ছৈয়দ হোছাইন। এছাড়া কাজ কম করেছে অযুহাত দেখিয়ে ওই সব ভোলান্টিয়ারদের কাছ থেকে হাতিয়ে নেওয়া হয়েছে প্রায় সাড়ে ৩ লাখ টাকা।

এ নিয়ে গত ২০ জুন উপজেলা পঃপঃ কর্মকর্তার নিকট নালিশ নিয়ে আসেন উচিতার বিল কমিউনিটি ক্লিনিক, আজমনগর কমিউনিটি ক্লিনিক ও খিলছাদেক কমিউনিটি ক্লিনিকের ভোলান্টিয়ার ও তাদের অভিভাবক।

সরে জমিনে দেখা গেছে, প্রতিটি ক্লিনিকে একজন অথবা দুইজন কর্মরত নেই। তবুও হাসপাতালের হিসাব রক্ষক ছৈয়দ হোছাইন সুকৌশলে তাদের নামে ভুয়া বিল করে সমূদয় টাকা আত্মসাত করে। ভোলান্টিয়াররা জানান, এসব বিষয় সরজমিনে গিয়ে নিরপেক্ষ তদন্ত করলে তলের বিড়াল বেরিয়ে আসবে।

এ ব্যপারে চকরিয়া উপজেলা প:প: কর্মকর্তা ডা: শাহবাজ জানান, এ রকম কোন তথ্য আমার জানানেই, তবে তথ্য প্রমান পেলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

চকরিয়া চক্ষু হাসপাতালে বিজ্ঞাপন


One response to “চকরিয়া সরকারি হাসপাতালে মাল্টিপারপাস ভোলান্টিয়ারদের ১১ লাখ টাকা লুট”

  1. MizanurRahman says:

    দেখার কি নেই কেউ?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2020 aponbangla.com
Desing & Developed BY ctghostbd.biz