বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:০৩ অপরাহ্ন
বিজ্ঞাপন

পেকুয়ায় গাড়ীসহ ৪ টি গরু জব্দ, অস্ত্রসহ আটক-২

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৮৯ Time View

ছবি-উদ্ধারকৃত গরু

পেকুয়া প্রতিনিধি:
কক্সবাজারের পেকুয়ায় ৪ টি গরুসহ ১ টি পিকআপ জব্দ করা হয়েছে। এ সময় জনতার সহায়তায় পেকুয়া থানা পুলিশ ১ টি দেশীয় তৈরী অস্ত্রসহ দুই ডাকাতকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে। ২০ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) দিবাগত রাত ৩ টার দিকে উপজেলার বারবাকিয়া ইউনিয়নের পাহাড়িয়াখালী থেকে গরু বোঝাই পিকআপসহ ওই ২ জনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতরা হলেন- চকরিয়া পৌরসভার আমান পাড়ার কায়কোবাদের ছেলে সোয়াইব(৪২) ও পৌর এলাকার কাহারিয়া ঘোনার আবুল কাশেমের ছেলে মো. জাহেদ(২৪)।
পেকুয়া থানা পুলিশ ও স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ওই দিন গভীর রাতে আটককৃত দুই ডাকাতসহ আরো অজ্ঞাত ৭/৮ জনের অস্ত্রধারী ডাকাত উপজেলার বারবাকিয়া ইউনিয়নের পাহাড়িয়াখালীতে হানা দেয়। এ সময় তারা বীর মুক্তিযোদ্ধা বাদশা মিয়ার বাড়ি থেকে ৪ টি গরু লুট করে। পিকআপ বোঝাই করে গরুগুলি রাতে সড়কপথে নিয়ে যাচ্ছিল। পাহাড়িয়াখালীর উত্তর দিকে টইটংয়ের ধনিয়াকাটা বাজারের দক্ষিণ দিকে নির্জন মগঘোনা বিলের নিকট পিকআপটির যান্ত্রিক ক্রটি হয়। এ সময় গাড়ীতে গরু দেখতে পান প্রত্যক্ষদর্শীরা। তারা পুলিশের জাতীয় সেবা ত্রিপল নাইনে ফোন করেন। সেখান থেকে সংবাদটি পেকুয়া থানা পুলিশকে অবহিত করা হয়। এ সময় পেকুয়া থানার একটি টহল পুলিশের টীম সেখানে পৌছেন। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সংঘবদ্ধ ডাকাতদল পুলিশকে লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোঁড়ে। পুলিশও পাল্টা গুলি ছোঁড়ে। এ সময় গাড়ীতে থাকা ডাকাত দলের মধ্যে অধিকাংশরা রাতে পালাতে সক্ষম হন। তবে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি দেশীয় তৈরী অস্ত্রসহ এ ২ জনকে আটক করতে সক্ষম হন। সঙ্গীয় পুলিশ ফোর্সের নেতৃত্ব দেন পেকুয়া থানার এস,আই শেখ ফরিদ। স্থানীয়রা জানান, উদ্ধার হওয়া ৪ টি গরুর মধ্যে একটি ষাড়, একটি গাভী ও ২ টি বাচুর। গরুগুলি বাদশা মিয়ার বাড়ি ছেলে বারবাকিয়া বাজারের ব্যবসায়ী মনজুর আলমের গোয়াল ঘর থেকে রাতে লুট করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মনজুর আলম জানান, গরুগুলি আমার। আমরা রাতে ঘুমিয়ে পড়ছিলাম। ডাকাতরা এসে গাড়ীতে করে আমার ৪ টি গরু নিয়ে যাচ্ছিল। সড়কে গাড়ীটি বিকল হয়ে যায়। আমার কপাল ভাল বলে এ পরিস্থিতি হয়েছে। আমি পুলিশ ও জনগনের প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞ। এ দিকে গাড়ীসহ গরু জব্দ ও পুলিশের হাতে দুই ডাকাত আটক হয়েছে এ খবর সর্বত্রে জানাজানি হয়। বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত পেকুয়া থানায় শত শত লোকজন জড়ো হন। এ সময় উপস্থিত লোকজন পেকুয়া থানার প্রধান ফটকের সামনে উপস্থিত থেকে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। লোকজন জানান, কয়েক মাসের ব্যবধানে পেকুয়া থেকে শত শত গরু চুরি হয়েছে। চোরের দল উপজেলার প্রত্যেক প্রান্ত থেকে মানুষের গৃহপালিত পশু লুট করছে। টইটংয়ের পশ্চিম সোনাইছড়ির কইড়ার পাড়ার আবুল কালাম জানান, আমি খবর পেয়ে থানায় এসেছি। গেল কোরবানের আগে আমার বাড়ি থেকে ৪ টি গরু নিয়ে গেছে। মৌলভীপাড়ার আবুল কালাম জানান, রমজানের সময় আমার বাড়ি থেকে ৩ টি গরু নিয়ে গেছে এ ডাকাতরা। টইটংয়ের নুরুল কবির সওদাগর জানান, আমার একটি গরুও ১ মাস আগে চুরি হয়েছে। সেটি ১ লক্ষ ৮৪ হাজার টাকা দরদাম হয়েছিল। এ ভাবে শত শত গরু নিয়ে গেছে এ পেকুয়া থেকে। সদর ইউনিয়নের সাবেকগুলদির আজাদ জানান, আমার বাড়ি থেকেও সম্প্রতি গরু চুরি হয়েছে। সুতাবেপারী পাড়ার মিকার নাজেম উদ্দিন জানান, আমার বাড়ি থেকে ৬ টি গরু চুরি হয়েছে। পেকুয়া সদরের আবু ছালেক মেম্বার জানান, আমার গৃহপালিত ২ টি গরু লুট করা হয়েছে। থানার সামনে উপস্থিত লোকজন জানান, আমরা এখানে যারা এসেছি সবাই ক্ষতিগ্রস্ত। গরুচোর সিন্ডিকেটের কারণে আমরা পশুপালন ছেড়ে দিয়েছি। চকরিয়া উপজেলার কোরালখালী, চিরিঙ্গার পালাকাটা, সওদাগরঘোনা ও পৌর এলাকার কিছু শক্তিশালী চোরাই সিন্ডিকেটের কাছে মানুষের গরু, ছাগল অনিরাপদ হয়ে গেছে। কোরালখালীর চিহ্নিত গরু চোর সর্দারের সিন্ডিকেট এ তৎপরতায় লিপ্ত। আটককৃত ২ জনও একই সিন্ডিকেটের। পেকুয়া থানার ওসি ফরহাদ আলী জানান, রাতের টহল পুলিশকে গুলি ছোঁড়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় দুই ডাকাতকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের অস্ত্র ও ডাকাতি মামলা দিয়ে আদালতের মাধ্যমে জেলে পাঠানো হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2022
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com