রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ০৭:৫৯ অপরাহ্ন
বিজ্ঞাপন

পেকুয়ায় ১৫ বছরের ভোগ দখলীয় জমি থেকে উচ্ছেদ পাঁয়তারা

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৪৬ Time View

পেকুয়া প্রতিনিধি:
কক্সবাজারের পেকুয়ায় সদর ইউনিয়নের দক্ষিণ মেহেরনামা নন্দীরপাড়ায় দীর্ঘ ১৫ বছরের ভোগ দখলীয় জমি থেকে একটি ভূমিহীন পরিবারকে উচ্ছেদ পাঁয়তারার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ডেপুটি কমিশন (ভূমি) মালিকানাধীন ১ নং খাস খতিয়ানভূক্ত সরকারী সম্পত্তি নিয়ে স্থানীয় দু’পক্ষের মধ্যে বনিবনা চলছিল। এর জের ধরে একটি ভূমিদস্যু চক্র বিরোধীয় জমিতে অনুপ্রবেশ চেষ্টা চালায়। এমনকি প্রভাবশালী ওই চক্র গভীর রাতে জায়গাটি জবর দখল নিতে সেখানে ভাড়াটে বহিরাগত লোকজনসহ একাধিকবার হানা দেয়। ১৫ বছরের ভোগ দখল বিদ্যমান রাখতে ভূমিহীন পরিবার সেখানে রাত জেগে পাহারা দিচ্ছে। জবর দখল করতে গিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে ধাওয়া ও পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। প্রতিপক্ষের হামলায় ১ জন শিশু শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। খবর পেয়ে পেকুয়া থানার এ,এস,আই মো: জয়নাল আবেদীনসহ সঙ্গীয় পুলিশ ফোর্স ওই স্থান পরিদর্শন করেছেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ৬০ শতক জায়গা নিয়ে সদর ইউনিয়নের পূর্ববিলহাসুরার মৃত নুর আহমদের পুত্র মোহাম্মদ মুজিব ড্রাইভার ও নন্দীরপাড়ার মৃত মিজবাহদৌল্লাহর পুত্র জাহেদ হোসেন ও তার ভাই নওশেদ হাসানের মধ্যে বিরোধ চলছিল। জায়গাটি নন্দীরপাড়া ও বিলহাসুরা পারাপার ফাঁড়ি খালের উপর নির্মিত সেতুর নিকটে। নন্দীরপাড়ায় ওই জায়গার অবস্থান। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মুজিব ড্রাইভার বিগত ১৫ বছর ধরে জায়গাটি ভোগ দখলসহ রক্ষনাবেক্ষণ করছিলেন। চলতি বর্ষা মৌসুমে ৬০ শতক জমিতে ওই ব্যক্তি ফসল রোপণ করে। গত ১ সপ্তাহ আগে ছাত্রদল নেতা জাহেদ হোসেনসহ একদল উত্তেজিত লোকজন জায়গাটি জবর দখল চেষ্টা চালায়। এ সময় স্থানীয়রা এসে জাহেদসহ বহিরাগতদের ধাওয়া দেয়। এ ব্যাপারে মুজিব ড্রাইভার বলেন, আমি ভূমিহীন। ১৫ বছর ধরে এ জায়গাটি ভোগ করছি। জায়গাটি সরকারী। জাহেদ ও তার ভাই নওশেদ বিপুল জায়গা জমির মালিক। চট্টগ্রামে বসতবাড়ি আছে। কোটি কোটি টাকার জায়গা সম্পদ আছে। আমার কিছুই নেই। সরকারী জমি কি আমি পাব নাকি কোটিপতিরা পাবে। জবর দখল ঠেকাতে এখানে স্ত্রী, সন্তান নিয়ে ছোট্ট ঘর নির্মাণ করে বসবাস করছি। স্ত্রী মিনু আক্তার জানান, হুমকির মধ্যে আছি। আমার স্বামী বাড়িতে থাকে না। ডিস্ট্রিক রোডে গাড়ি চালায়। কয়েক দিন আগে এসে সন্ত্রাসীরা আমার ছেলে রাজিবকে মারধর করেছে। ৮ম শ্রেনীর ছাত্র সজিব জানায়, আমরা নিরাপত্তাহীন। তছলিমা জন্নাত জানায়, সারা রাত জেগে থাকি আমরা। সাইফুল ইসলাম, মো: ফারুক, গৃহবধূ মাহামুদা বেগম, বেবী আক্তার, রুপিয়া বেগম, কালা ভূরিসহ স্থানীয়রা জানান, জায়গাটি মুজিবের ভোগ দখলে রয়েছে ১৫ বছর আগে থেকে। সেখানে একটি ঘর আছে। গাছ গাছালি রোপণ করা হয়েছে ওই জায়গায়। জমিতে ধান রোপণ করে মুজিব। সাবেক ইউপি সদস্য আরিফুল ইসলাম জানান, মুজিব ১ জন দরিদ্র মানুষ। সরকারী জমি আসলে ভূমিহীনদের অধিকার।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2022
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com