বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:২৯ অপরাহ্ন
Title :
দেশ সেরা প্রতিবন্ধী এ্যাওয়ার্ড পেলেন পেকুয়ার মো: হাসান রব্বানী নাইক্ষ্যংছড়িতে সদ্য জন্ম নেওয়া নবজাতকের কাছে শুভেচ্ছা উপহার প্রদান করলেন, চেয়ারম্যান আবছার! পেকুয়ায় মসজিদ থেকে চুরি হওয়া এলুমিনিয়াম তার উদ্ধার করল পুলিশ পেকুয়ায় রাজাখালীতে কোটি টাকা মূল্যের সরকারী জায়গা জবর দখল মহোৎসব রামুতে কৃষিতে অধুনিক যত্নপাতি ব্যবহারে কৃষক মাঠ দিবস নাইক্ষ্যংছড়িতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা ভঙ্গ করে ধান কেটে নেয়ার অভিযোগ রামুর গর্জনিয়ায় থামছে না ইয়াবা বাণিজ্য,মাদকদ্রব্য অধিদপ্তরের জালে আটকা পড়লো ২ ব্যবসায়ী পেকুয়ায় চিংড়ি ঘের থেকে উদ্ধার হলো শিশু মাহিয়ার অর্ধগলিত লাশ নাইক্ষ্যংছড়িতে পার্বত্য চুক্তির পূর্তি উপলক্ষে শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা, শিক্ষা সামগ্রী ও শীতবস্ত্র বিতরণ Bare trening åpningstider hamar – finn sikker betaling moden kvinne søker yngre menn
বিজ্ঞাপন

চকরিয়ায় আইএসডিই এর উদ্যোগে কোভিড-১৯ সংক্রমণ প্রতিরোধে লোক গান ও পথ নাটক শো অনুষ্ঠিত

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ১৯৮ Time View

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
দেশের কোভিড-১৯ টিকাদানে পিছিয়ে পড়া অন্যতম জেলা ককসবাজারে কোভিড-১৯ মহামারীর সংক্রমণ প্রতিরোধে তৃণমূল পর্যায়ে গণসচেতনতা সৃষ্ঠিতে লোকগান ও পথ নাটক শো’র আয়োজন করেছেন বেসরকারী সমাজ উন্নয়ন প্রতিষ্টান আইএসডিই বাংলাদেশ। এনজিওদের শীর্ষ সমন্বয়কারী প্রতিষ্টান এডাব এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে ইউনিফেসের সহযোগিতায় আয়োজিত এ সাংস্কৃতিক প্রচারাভিযানের আতওায় চকরিয়া উপজেলার ফাসিয়াখালী, চকরিয়া পৌরসভা, সাহারবিল, পশ্চিম বড় ভেওলা, বদরখালী, ডেমুসিয়া, বিএমচর ও পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের গুরুত্বপূর্ন হাট ও বাজার এলাকায় এ প্রচারণা কর্মসুচির আওতায় লোক গান ও পথ নাটকের আয়োজন করা হয়। সাংস্কৃতিক প্রচারণা কর্মসুচিতে বিপুল সংখ্যক নারী-পুরুষ অংশনেন এবং কোভিড-১৯ প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা ও টিকাদানের গুরুত্ব নিয়ে লোক গান ও নাটিকা প্রদর্শন করা হয়।

এসমস্ত কর্মসুচিতে আইএসডিই কর্মসুচি সমন্বয়কারী জাহাঙ্গীর আলম, আইএসডিই বাংলাদেশ’র চকরিয়া উপজেলা ব্যবস্থাপক জালাল উদ্দীন, আইএসডিই বাংলাদেশ’র প্রজেক্ট অফিসার আসিফ নুর হাসনাত, আইএসডিই বাংলাদেশ’র প্রশিক্ষন কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল ফাহিম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

সাংস্কৃতিক প্রচারণা কর্মসুচিতে বক্তাগন বলেন, ককসবাজার জেলায় করোনার টিকা গ্রহনের দি দিয়ে পিছিয়ে আছে। নানা কুসংস্কার ও অজ্ঞতার কারনে টিকা গ্রহনে সাধারন মানুষের আগ্রহ কম। করোনার ৪র্থ ঢেউ আবার দেখা যাচ্ছে। আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমাগতই বাড়ছে। সাধাারণ জনগনের মধ্যে করোনা মহামারী সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করা না গেলে ও স্বাস্থ্যবিধি মানতে বাধ্য করা না হলে এ মহামারী থেকে রক্ষা পাওয়া কঠিন। করোনা মহামারী সংক্রমণ প্রতিরোধে কোভিড-১৯ টিকা গ্রহন, মাক্স পরিধান, সামাজিক দূরত্ব বজায়, জনসমাগম এডিয়ে চলা এবং ঘন ঘন হাত ধোয়ার বিকল্প নাই। টিকার পরবর্তী উপসর্গ সম্পর্কে সর্তকতা অবলম্বন করতে হবে। সকল প্রকার গুজব ও কু-সংস্কার পরিহার করতে হবে।

উল্লেখ্য কোভিড-১৯ সংক্রমন প্রতিরোধে ঝুঁকি নিরূপণ, যোগাযোগ সম্পৃক্তকরণ ও টিকা-বার্তা যোগাযোগ জোরদারকরণ প্রকল্পের আওতায় করোনার ঝুঁকি-ভয়াবহতার ব্যাপারে গণসচেতনতা সৃষ্ঠির লক্ষ্যেই এই সাংস্কৃতিক প্রচারাভিযানের আয়োজন করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2022
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com