সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২, ১০:৪৫ অপরাহ্ন
Title :
সাতকানিয়ায় চলন্ত বাস ছিটকে ব্রিজের নিচে- আহত ১৪ লোহাগাড়ায় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে উপজেলা প্রশাসনের শ্রদ্ধা ও শোক র‍্যালী শোক দিবসে ১১ বিজিবির ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যেগ,৪’শ হতদরিদ্রদের খাদ্য-ফ্রি চিকিৎসা সেবা নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তে বিয়ারসহ ১ মাদককারবারি আটক লোহাগাড়ায় পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু চকরিয়ায় পরিচয় গোপনে নাগরিকত্ব নিয়ে ভোটার হওয়ার চেষ্টা, ছবি উঠাতে গিয়ে ধরা! ছাত্রকে বিয়ে করা সেই কলেজ শিক্ষিকার আত্মহত্যা পেকুয়ায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমি দখলের চেষ্টা পেকুয়ায় রোপিত ধানের চারা নষ্ট করলো দুবৃর্ত্তরা নাইক্ষ্যংছড়ি থানা’সেকেন্ড অফিসার ইহসানুল জেলার শ্রেষ্ঠ এসআই মনোনীত
বিজ্ঞাপন

টাকার ভাগ না পাওয়ায় কৃষককে  পিঠিয়ে হত্যা করলো বনবিভাগের লোকজন!

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন, ২০২২
  • ৮০ Time View

স্টাফ রিপোর্টার:

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার কাকারা বনবিট অফিসে কর্মকর্তার সঙ্গে সাক্ষাত করতে গিয়ে নির্মম প্রহারে রশিদ আহমদ(৭০) নামের এক বৃদ্ধা নিহতের ঘটনায় থানায় লিখিত এজাহার দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগে বনবিটের জন্য দেয়া ৬হাজার ৫শত টাকা চাঁদার ভাগ না দেয়ায় এবং দাবীকৃত ১৫হাজার টাকার মধ্যে অবশিষ্ট টাকা পরিশোধ না করায় ২৮ জুন সকালে হত্যাকান্ডের মত জগন্য এ ঘটনাটি ঘটেছে।এঘটনায় নিহতের পুত্র আনিছুর রহমান বাদী হয়ে ৩০জুন বিকেলে থানায় এ এজাহারটি দায়ের করেন।
এতে আসামী করা হয়েছে; অভিযুক্ত কাকারা বিট কর্মকর্তা কামরুল হাসান (৪৫),ফরেস্ট গার্ড মাজাহারুল ইসলাম (৪২),অফিস পাহারাদার মোঃ সেলিম (৩৬)সহ অজ্ঞাত আরো কয়েকজনকে।

বাদীর দায়েরকৃত এজাহারে জানান, সুরাজপুর- মানিকপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের মানিকপুর ফাইতং ব্রীজের উত্তর-পশ্চিম পাশে নিহত রশিদ আহামদ (৭০) এর মালিকানাধীন বি.এস খতিয়ানভুক্ত নাল জমির মাথা খিলা কিছু খাস দখলীয় জমি রয়েছে।তা বিগত প্রায় ৩০ বৎসর যাবত ভোগ দখলেও রয়েছেন। জমিতে খামার ঘর নির্মান ও তৎসংলগ্ন নাল জমিতে চাষাবাদও করেন। উক্ত খামার ভিটায় কাঠাল, আম, জাম্বুরা সহ বিভিন্ন প্রজাতীর ফলজ ও বনজ গাছ পালন করেন। রশিদ আহামদ গত ২২জুন’২২ইং জমিতে ১টি গোয়াল ঘর নির্মাণ কাজ শুরু করলে অভিযুক্ত কাকারা বনবিট কর্মকর্তা তার সহযোগিদের নিয়ে এদিন বিকাল আনুমানিক ৪টার সময় ঘর নির্মাণে বাঁধা প্রদানসহ ঘরটি ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেন।
নিহতের পুত্র আনিছ আরো জানান, পরবর্তীতে বিট কর্মকর্তা ও সহযোগিরা তার পিতার কাছ থেকে ১৫ হাজার টাকা দাবী করেন। ফলে বৃদ্ধা কৃষক রশিদ আহমদ নিরুপায় হয়ে অভিযুক্ত ৩নং আসামীর মাধ্যমে বনবিটের জন্য ৬,৫০০টাকা চাঁদা দেন। কিন্তু অভিযুক্ত বিটকর্মকর্তা উক্ত টাকার ভাগ না পাওয়ায় গত ২৬জুন’২২ইং বিকাল ৪ ঘটিকায় স্থানীয় ৩/৪ জন লোক সাথে নিয়ে পূণরায় বৃদ্ধা কৃষকের খামার ঘরে গিয়ে অশ্লীল গালি-গালাজ ও মারমুখি আক্রমণ করতে উদ্যত হয়। এক পর্যায়ে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের কথা বললে চেয়ারম্যান নাম ধরেও গালি-গালাজ করে রশিদ আহমদকে ২৭জুন’২২ইং সকাল বেলায় কাকারা বনবিট অফিসে হাজির হওয়ার
নির্দেশ দিয়ে চলে আসেন। ২৭জুন বনবিট অফিসে না গিয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান এর বাড়ীতে গিয়ে উক্ত বিষয়ে অবগত করে পরে ঘটনারদিন ২৮জুন’২২ইং সকাল আনুমানিক ৮ঘটিকার সময় রশিদ আহামদ সুস্থ শরীর নিয়ে নিজবাড়ি মানিকপুর ১নং ওয়ার্ড পাড়া হতে সি.এন.জি গাড়ী যোগে ঘটনাস্থলের বনবিট অফিসের সামনে সামনে নেমে পায়ে হেটে অফিসে প্রবেশ ঢুকেন। ওই সময় অভিযুক্ত ১নং আসামী বৃদ্ধা রশিদ আহমদকে দেখেই অশ্লীল গালি-গালাজ শুরু বনবিট অফিসের রুমে অবরুদ্ধ করে বৃদ্ধার মাথায়, বুকে, মুখে, কপালে, উভয় হাঁটুতে ও সর্বশরীরে পর পর আঘাত করে জখম করেন। এছাড়া বৃদ্ধের পরিধেয় পাঞ্জাবী, লুঙ্গিও ছিড়া অবস্থায় পাওয়া যায়।
নিহতের পুত্র আনিছ জানান, মারধরের কারণে তার পিতা ঘটনাস্থলে মারা যায়। অভিযুক্তরা তার পিতার মৃত্যু ধামাচামা দেওয়ার জন্য কৌশল অবলম্বন করে পিতার মৃতদেহ কাকারা ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান এর বাড়ীর পার্শ্ববর্তী কাকারা সড়কের পাশে ফেলে দিয়ে সটকে পড়ে। এরপর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে জানতে পারেন কাকারা বনবিট অফিসের সামনে রাস্তার পাশে অজ্ঞান অবস্থায় তার বাবার মৃতদেহ পড়ে আছে। ওইসময় স্থানীয় লোকজন তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তিনি প্রশাসনের কাছে তার বাবা হত্যার বিচার কামনা করেন।

এদিকে, হত্যাকান্ডের বিষয়টি অস্বীকার করেন কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের চকরিয়া উপজেলার কাকারা বনবিট কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম। তিনি নিজেকে নির্দোষ দাবী করেন।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) চন্দন কুমার চক্রবর্তী বলেন, স্থানীয়দের সহায়তায় বৃদ্ধা রশিদ আহমদের মৃত দেহটি উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করায় সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করে লাশের ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। পরে লাশটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। ঘটনার পর ৩০জুন বিকেলে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত এজাহার জমা দিয়েছেন। যেহেতু বনবিভাগের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তাই বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2022
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com